এইচএসসি পরীক্ষার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

533

আর মাত্র কয়েকটা দিন।তার পরে তোমাদের এইচ এস সি পরীক্ষা।  কেমন চলছে তোমাদের এইচ এস সি পরীক্ষার প্রস্তুতি। তোমাদের প্রস্তুত্তিকে বেগবান করতে আজ আমাদের আয়োজন । মনে রেখো ওস্তাদের মার শেষ রাতে। চলুন শুরু করি…

সবার আগে দরকার নীল নকশাঃ  নীল নকশা মানে পাকিস্তানীদের মত না। এর মানে সঠিক পরিকল্পনা। ধরো তোমার পরিক্ষার বাকি আছে ২ মাস, অথাৎ ৬০ দিন। এই ৬০ দিনকে এমনভাবে ভাগ করো যাতে প্রত্যেক সাবজক্ট সর্বোচ্চ ভালোভাবে রিভাইজ দিতে পারো।

রুটিন মেনে চলাঃ আরেকজনের তৈরী করা রুটিন না। নিজেই নিজের সুবিধামত রুটিন বানিয়ে ফেলো। এটা তোমার বেশী ভালো কাজে দিবে। খাওয়াদাওয়া, খেলাধুলা, বিশ্রাম সব রুটিনের মধ্যে নিয়ে আসো। রুটিন মাফিক কাজ করলে সবকিছু দ্রুত ও ভালোভাবে শেষ হবে। নিজের অগোছালো জীবনকে গোছাও তবেই ভালো ফলাফল করতে পারবে।

মন মানসিকতায় পরিবর্তন আনোঃ আমি এটা পরবো না , আমার পক্ষে সম্ভব না এইসব চিন্তা মাথা থেকে বাদ দিয়ে ফেলো।  মনে মনে সব সময় বলো  আমি পারবো। হ্যাঁ আমি পারবো। ৮০ পাওয়ার ইচ্ছে থাকলে ১০০ পাওয়ার প্রস্তুতি নাও। ছোট বেলায় আমরা পড়ছি পারিবো না, পারিবো না এই কথাটা বলিও না আর এক বার না পারিলে দেখো শতবার। তাহলে ভয় কিসের??? শত বার চেষ্ট করো। যেনো পরে আফসোস করতে না হয় ইস! আরেকটু ভালো করে পড়লে রেজাল্টটা আরো ভালো হতো। তাই এখন থেকে নিজের সবটুকু দিয়ে চেষ্টা করো।

অন্যের সাথে তুলনা দিও না ঃ মোমবাতি মত তুমিও বলো “আমার সাধ্য যতটুকু আমি তা করিব। অমুক এই পড়তেছে সেই পড়তেছে এগুলো ভাবা বন্ধ করো। এগুলো হতশা ছাড়া আর কিছুই দিবেনা।

পড়ার সময় পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়বাঃ পড়ার টেবিলে যেন ফোন না থাকে আর পড়ার মাঝে ফোন ধরবা না। দরকার পড়লে দরজা বন্ধ রাখবা যাতে বাইরে কান না যায়। পড়া মানে শুধুই পড়া তার মধ্যে এই সময় এসে ফাঁকি দিলে ফেসে যাবা।

তোমার পুঁজি টুকু ঝালাই করোঃ যে গুলো পড়ছো বার বার রিভাইজ করো। নতুন জিনিস আর পড়ার দরকার নাই। যে টুকু পড়ছো তাই রিভাইজ করো রিভাইজ না করলে সহজ জিনিসও দ্রুত ভুলে যাবে। *ঠিক মত বিশ্রাম ও একটু বেশি করে খাও। কারণ পড়লে দ্রুত ক্ষুধা লাগে। তাই পড়ার টেবিলের পাশে খাবার জিনিস রাখো। ঘুম পরিমিত হওয়া দরকার। মনে হতে পারে ওটা সময়ের অপচয় কিন্তু ওটা তোমাকে পরবর্তী কাজের শক্তি দিবে।

সৃষ্টিকর্তাকে ডাক, নিয়মিত পার্থনা করোঃ মন নরম থাকবে। পড়ায় ও গতি বাড়বে। নিজ নিজ ধর্ম অনুযায়ী সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ মনে প্রশান্তি সৃষ্টি করে

আবার বলছি নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রাখোঃ আত্মবিশ্বাস না থাকলে সহজ কাজও কঠিন মনে হবে । যে যাই বলুক তুমি তো জানো তুমি চেষ্টা করলে তোমাকে কেউ আটকাতে পারবে না।

দেখিয়ে দাও দুনিয়াকে তুমিও পারো। সময় এসেছে দেখিয়ে দেয়ার। মনে রেখ “যে কেউ, যে কোনো সময়, যে কোনো অবস্থা থেকে ঘুরে দাড়াতে পারে” তুমিও পারবে। শেষ ভাল যার সব ভাল তারই। এত দিন যা করছো তা ভুলে যাও। নতুন করে শুরু করো জীবন তো একটাই তাই না? তবে ভাবনা কি। মরতে নয়, লড়তে এসেছি। হার মানতে নয় জিততে এসেছি। খুব ভাল করে পড়ো। আমার দোয়া রইল।